স্বাধীনতার ৪০ বছরঃ আমাদের অঙ্গীকার

0
1651

ক্রীতদাস ছিলেন আমার পূর্বপুরুষ। প্রপিতামহ, পিতামহ, পিতা বংশানুক্রমিকভাবে – দাসের ছেলে দাস। আমিও এক দাসের ছেলে। ক্রীতদাস নয় জন্ম নিয়েছি স্বাধীন মাতৃভুমির মুক্তমাতৃগর্ভে। আমার দাসত্ব ঘোচাঁতে যুগে যুগে পূর্বপুরুষের রক্ত ঝড়েছে অনেক। তিতুমীর, সূর্যসেন, ক্ষুদিরাম, প্রফুল্লচাকী, বিনয়, বাদল, দিনেশ, ছালাম, বরকত, রফিক, জব্বার, আসাদ, মতিউর, জহিরুল নাম না জানা কত বীর, কত রক্ত, কত সংগ্রাম – তবুও মুক্তি মেলেনি। অবশেষে ৭১। সাড়ে সাত কোটি বাঙালী এক সাথে গর্জে উঠল বঙ্গবন্ধুর মত। লক্ষ প্রানের বিনিময়ে এল ডিসেম্বর। এল স্বাধীনতা। দাসত্বের শৃঙ্খল বেরি ভেঙ্গে আজ আমি স্বাধীন দেশের স্বাধীন মানুষ। আমরাই স্বাধীনতার প্রথম প্রজন্ম। রক্তে ভেজা সবুজ স্বদেশ আজ ৪০ বছরের মাঝ বয়সী যুবক। দাড়াও নিজেকে প্রশ্ন কর ক্রীতদাস পিতার শৌর্য, বীর্য, রক্তের ঋণ ৪০ বছরে শুধিয়েছি কতটুকু ?

আমার রক্ত শুষে পাঠান, মুঘল, ইংরেজ, পাকীদেরই গতর শুধু বড় হয়নি। ধর্মের মুখোশ পড়ে কিছু কুলঙ্গারও মেতে উঠেছিল সেদিন রক্তচোষার বিভৎস উৎসবে। সেদিন তারা পরাজিত হলেও সেই বিষবৃক্ষের বীজ সমূলে উৎপাটিত হয়নি। সেই বৃক্ষ রং বদলিয়ে ধর্মের বাহারী মুখোশ পড়ে আজও আমাদের রক্ত চুষছে। অথচ লোভে আর মোহে টের পাচ্ছি না কিছুই! আমার অজান্তে, আমারই রক্ত চুষে ৪০ বছরে আজ সেই বীজ পরিণত হয়েছে হাজারো মহিরূহে। মহিরূহ সেই বিষবৃক্ষের নাম কখনো ইবনে সিনা, কখনো ইসলামী ব্যাংক কিংবা যুবক। আর কত ? প্রতিরোধের সময়কি এখনো আসেনি বন্ধু ?

৭১এ যদি কিশোরও হতাম যুদ্ধে যেতাম ; এই দায়বোধ যদি থাকে অনুভবে, আসুন খুজে বের করি সেই সব পশুদের যারা কেড়ে নিয়েছিল ৩০ লক্ষ প্রাণ। দেশকে যদি মা বলে ডাক সেই ধর্ষিতা মায়ের কসম প্রতিরোধে সোচ্চার হই এখনই। যতই রং বদলাক লোভে পড়ে যেন চিনতে ভুল না করি। খুজে বের করি সেই রাজাকারের নতুন চেহারা। সর্বত্র প্রতিরোধ করি যে কোন কিছুর বিনিময়ে। রং বদলানো সেই সব কুলাঙ্গার রাজাকারদের নতুন নাম হলঃ

Islami Bank & Foundations:

(Islami Bank Hospital, Islami Bank Medical College, Community Hospital, Monoram: Islami Bank Crafts & Fashion, Islami Bank Institute of Technology, Islami Bank International School and College, Islami Bank Physiotherapy and Disabled Rehabilitation Centre, Centre for Development Dialogue, Bangladesh Sangskritic Kendra)

Ibn Sina Trust:

(Medical College & Hospital, Pharmaceuticals Industries Ltd, Diagnostic & Imaging Center)

Education business: (All most all Qawmi madrasas, International Islamic University Chittagong, Darul Ihsan Trust, King Faisal institute, Focus, Omeca, Renesa, Al-Hera kinder garden, Manarat International School & College, Institute of Islamic Higher Learning Society)

Health businss:

(Al Markajul Islami, Al Maghrib Eye Hospital)

Builders & Devlopr: (Keari Holdings, Pink City, Misson developers, Biswas Builders, Metro Shopping Mall, keari plaza)

Public Transport: (Anabil, Ababil, Salsabil, Saudia..)

Media

(Diganto television, Daily Naya Diganto, Daily Songram, Al Manar Audio Visual, Saimum, Sangscritic Kendro).

International NGOS

(Ishra Islamic Foundation, Ishrahul Muslimin, Rabita Al Alam Al Islami, Al Haramain Islamic Foundation, Al Forkan Foundations, Fuad Al Khatib Foundation, Servants of Suffering Humanity International-SSHI, Islahul Muslimine, Revival of Islamic Heritage Society-RIHS, Ahle Hadith Library and Information Centre, Rabeta Tauhid Trust, Benevolent Trust, AL Harmain, Kuwait Charitable Trust, Islamic Relief Agency, Kuwait Islamic Agency, Muslim Aid Bangladesh, Islamic Aid Somitee, Associate of Muslim Welfare Association

Adarsha Shiksa Porishad, Adarsa Kutir, Agro-Industrial Trust, Al-Faruk Society, Al Insan Foundation, Al amin, Al Mudaraba Foundation Ltd., Al Mazid Society, Al Insan-Sunsi Somitee, Al Harmain, Anzumane Ittehad Bangladesh Association for Welfare of Human Services, Association of Muslim Welfare Agency in Bangladesh, Baitush Sharf Foundation Ltd, Sathia-Bangla Parishad, Bangladesh Krishi Kollan Somitee, Institute of Islamic Front, Center for Human Rights, Bangladesh Moshzid Somaj, Darul Ifta, Darus Salam Society, Doleshori Multipurpose Co-operative Society, International Islamic Relief Organization, Al Faruk Islamic Foundation. Faisal Investment Foundation, Agro Industrial Trust (AIT), keari tour & travels, Manarat Trust, T.K. Group of Industries, BD Foods..